দৃষ্টিশক্তি ফিরিয়ে আনার ৯ টি পরিক্ষিত পদ্ধতি

দৃষ্টিশক্তি ফিরিয়ে আনার ৯ টি পরিক্ষিত পদ্ধতি


চিকিৎসা সাস্ত্রের একটি মৌলিক নীতি  হচ্ছে যে আপনি যদি যেকোন পেশীকে ব্যবহার না করেন তাহলে এটা দুর্বল হয়ে পড়বে। অন্যসকল পেশীর মতো আপনার চোখের পেশীগুলোকেও একটি অনুশীলনের মধ্যে রাখতে হবে তাদের কাছ থেকে ভাল ফল পেতে হলে।

এখানে ৯টি পদ্ধতি সম্পর্কে আলোচনা করা হল যা আপনার দৃষ্টিশক্তি ফিরিয়ে আনতে সাহায্য করবে।

 

১। চোখের উপর চাপ পড়ে এমন কাজ একনাগারে না করে প্রত্যেক ২-৩ ঘন্টা পরপর কয়েক মিনিটের জন্য চোখ বুজে চোখকে একটু বিশ্রাম দিন।

২। এখানে ১৬ টি অতি পরিচিত চোখের ব্যায়াম দেয়া হল যা প্রত্যেকদিন অনুশীলন করলে আপনার চোখকে ভাল রাখতে সাহায্য করবে।

© healthjournal365

৩। আপনি যদি চোখে গ্লাস ব্যবহার করেন তাহলে গ্লাস পড়ার সময়টা কমিয়ে নিন । ঘনঘন চোখ থেকে চোখ থেকে গ্লাস সরাবেন।

৪। মাঝেমাঝে চোখে আলতোকরে একটু ম্যাসাজ করুন সার্কুলার মোশনে। নিচের চিত্রে যেভাবে দেখানো হয়েছে ১ থেকে ৭ পর্যন্ত পয়েন্ট থেকে পয়েন্ট । মধ্যমা এবং তর্জনী দিয়ে হালকা চাপ দিবেন চোখের উপর কিন্তু খুব সাবধানে যাতে ব্যাথা না লাগে।

© healthjournal365

৫। আপনি যখন বাহিরে বেড়াতে যাবেন, সবসময় চেষ্টা করবে কাছাকাছা জিনিসগুলোর উপর নজর না দিয়ে যতদুর তাকানো যায় তাকাতে।

৬। গাজরের জুস খাবেন সুযোগ পেলে। (সম্ভব হলে প্রতিদিন)। যদি সর্বোচ্চ উপকার পেতে চান তাহলে এর মধ্যে ১-২ ফোটা অলিভ ওয়েল দিতে পারেন।

৭। যখন চোখে ক্লান্তি অনুভব করবেন হালকা গরম পানি দিয়ে চোখে ঝাপটা দিন ।

৮। ঘুমানো অন্তত ২ ঘন্টা আগে টিভি, কম্পিউটার স্ক্রীন এবং স্মার্টফোন ব্যবহার বন্ধ করতে হবে।

৯। ভারতীয় একটি জনপ্রিয় ব্যায়াম “Trataka” অনুশীলন করতে পারেন। এটা আপনার চোখ ও মনকে একনিষ্ট হতে সাহায্য করবে।

© brightside.me

কোন বস্তুকে একটু দুরত্বে রেখে সামনাসামনি বসুন (হতে পারে একটি মোমবাতি) বস্তুটির দিকে তাকান এবং সমস্ত মনোযোগ এটির উপরে দিন। চেষ্টা করবেন যাতে চোখের পাতা না পড়ে। বস্তুটির একটি পরিপুর্ণ স্বচ্ছ ছবি মনের আকার চেষ্টা করুন।

আস্তে করে চোখ বন্ধ করুন এবং চোখ বন্ধ অবস্থায় যে দুরত্বে আগে বস্তুটি ছিল ঠিক সেই দুরত্বে বস্তুটির একটি স্বচ্ছ ছবি দেখতে চেষ্টা করুন। ১০ মিনিট সময় ধরে অনুশীলনটা করবেন। আপনার উদ্দেশ্য থাকবে যে চোখ ক্লান্ত হওয়ার আগেই একটা স্বচ্ছ ছবি দেখা।

Source: Brightside

+ There are no comments

Add yours